Header Ads

কবি নুরআলম মণ্ডল -এর একটি কবিতা 'বাঁকা পথের চোরা গলি'


বাঁকা পথের চোরা গলি
নুরআলম মণ্ডল

শহর মাঝে ছোট্ট কোনে, জোটে মোদের ঠাঁই।
নামের ডাকে শহর কাঁপে, জীবন পুরে ছাই। 
শাড়ির ভাঁজে মনের খিদে মেটাই বাবু নেশা।
 গলির বাঁকে দাঁড়িয়ে থেকে মনের দাম কষা। 
মায়ের স্তনে চাঁদের আলো 
শিশুর মুখে ছায়া। 
পাশের ঘরে রঙের খেলা কান্না ভাঙে মায়া। 
জন্ম থেকে নয়গো বাবু ছিলাম আগে রাধা। 
সবার মতো মোদের মনে ছিল স্বপ্ন বাঁধা। 
গভীর রাতে সোহাগ ছেড়ে দামের বেলা কড়ি। 
দেহের থেকে অনেক দামি পথের পাশে নুড়ি। 
নাভীর নীচে প্রানের আলো
চোখের কোনে জল। 
কোন ঠিকানা বাঁধব ঘর? পুরুষ জাতি ছল। 
বাঁকা পথের চোরা গলিতে দাঁড়িয়ে থাকি একা। 
দিনের আলো ফুরিয়ে এলে মনিব যায় দেখা। 
বাসী ফুলের গন্ধ মরা টাটকা ফুলে ভরা। 
জীবন নিয়ে করছে খেলা জাতীর জাতি সেরা। 
ঘরের মেয়ে পুজার ফুল "পাড়ার মেয়ে"কাঁটা। 
পিতার কোলে নগ্ন দেহ অঙ্ক ভারী মোটা। 
সুতোয় বাঁধা জীবন রেখা গলির পথে শুরু। 
মায়ের পরে মেয়ের পালা জীবন হল মরু। 
শহর তলি ঘুমিয়ে পড়ে জাগে নিথর দেহ।
রাতের নেশা ফুরিয়ে গেলে চায়না আর কেহ। 
চাঁচের ঘরে প্রদীপ আলো যায় না রাখা ধরা। 
শুকিয়ে এলে যৌবন বন যেতেই হবে সরে। 

No comments

Powered by Blogger.