Header Ads

কবিরুল ইসলাম কঙ্ক -এর একটি কবিতা 'সামনে কোনও রাস্তা নেই'



সামনে কোনও রাস্তা নেই 

কবিরুল ইসলাম কঙ্ক


মানচিত্র যেখানে শেষ, তার সামনে কোনও রাস্তা নেই 
এক না একদিন থামতেই হয় মানচিত্রকে,
কে আর কবে হয়েছে নিরবিচ্ছিন্ন ধ্রুবতারা ? 
কাছ থেকে সরে যায় প্রিয় মাটি, আপন শস্য  
সামনে এসে দাঁড়ায় মহাসাগর অথবা মহাপর্বত ।

একই ব্যাপার ঘটে সাপলুডো খেলায় 
মই বা সাপের মুখে সতত পালানোর রাস্তা থাকে না, 
রাস্তার বিনিময়ে লেখা হয় অধঃপতন, ঊর্ধগতির ইতিহাস । 
শেষমেষ রাস্তাও শেষ হয় আরাম বিছানায় 
ধরাবাঁধা গণিতের ঘরে একই চেনাজানা রংছটা ।

বয়স বাড়ছে । বাড়ছে চাহিদার রেখাচিত্র 
সময় চায় না শেকলপুরাণের নিয়মকানুন,  
ফলত, খুলে দেওয়া হয় সামনের রাস্তার বুক । 
দারুণ দ্রুততায় নেমে আসে প্রিয় দেশ, মাটি 
সামনে থেকে দ্রুত সরে যায় রাস্তা 
এবং এ জনমের যাবতীয় কাজ কারবার ।

কখনও পাগলা ষাঁড়ের চোখে বাঁধা হয় লালরুমাল 
কখনও ধ্যানস্থ মুনির সামনে আনা হয় অপ্সরী,
মাঠে মারা যায় গন্তব্যের যতসব ব্লু-প্রিন্ট । 
চোখের সামনে ভোগবাদের কোমর নেচে উঠলে
সামনে কোনও রাস্তা থাকার কথা নয় । থাকেও না।

আমাদের সামনে প্রতিদিন দেওয়া হয় প্রাচীর 
প্রাচীর চৌবাচ্চায় একপেশে জীবনের জলকেলি । 
কত মায়া, কত ভণ্ডামি, কত ব্যথা পিঠে বেঁধে 
দুরন্ত ছুটে চলে আমাদের জীবনের চারপাশ 
আমরা ক্রমশ হই আশ্চর্য পৃথিবীর বাসিন্দা ।

দশদিকে বেপরোয়া চলাচলের হাতছানি 
সামনে কোনও রাস্তা নেই, রাস্তা নেই ....।

No comments

Powered by Blogger.