Header Ads

শুভায়ুর রহমানের একটি অণুগল্প 'সংক্ষিপ্ত বর্ণনা'


সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
শুভায়ুর রহমান

মা বাপ শখ করে শহরে পাঠিয়েছিল।কলেজের প্রথম দিনে ভয়ও পেয়েছিল।এক দিন..দুই দিন...এমনি ভাবে বন্ধু জুটল।ছেলে..বন্ধু,মেয়ে.. বন্ধু আর কত কথা।

গ্রামের মেঠো রাস্তার গল্প,খইদই শুনতে শুনতে অফার দিয়েছিল বড়লোকের বখাটে ছেলে।তবে সাহস হয়নি প্রত্যাখ্যান করার মেয়েটির।মেয়েটি কলম ডায়েরি নিয়ে খেলে, কিছু লাইন কবিতা লিখে ফেলে।

ভালো কথার আড়ালে মেয়ে পটানোর কারসাজিতে বেশ সড়গড়। তারপর, পার্কের ঝাপট গাছের নীচের ঠোঁটে ঠোঁট  দিয়ে প্রতিজ্ঞা করে মেয়েটি-'তুমি যা বলবে আমার  তা শিরোধার্য।

অমনি একদিন বন্ধুর ফ্ল্যাটে রাত নামল।শীতের কুয়াশার মতো বুক থেকে সরে গেল ওড়না,পৃথিবীর সমস্ত মায়ায় ঘেরা শরীরে শরীরে তীব্র নেশা।মেয়েটি চিত হল,কখনো উপুড় হল।একদিন ফুলে উঠল মেয়েটির পেট।কিছুটা ভয়ে, কিছুটা লজ্জা নিয়ে ছেলেটিকে বলল-"চলো বিয়ে করি।"নিমরাজি হল ছেলেটি। অস্বীকার করে দায় সারল।আর বলল-"বজ্জাত মেয়ে।"

মেসে ফিরে পৃথিবীর ভর আর গোলাবারুদের মতো বিষাক্ত হতে হতে নাওয়া,খাওয়া ভুলে চিরকুট লিখল দু,পৃষ্ঠা।পরের সকালে ঘর থেকে আবিষ্কার হল ব্রেকিং নিউজ, অন্তরতদন্ত।
কিছু দিন পর ধামাচাপা পড়েগেল।সবজি বিক্রেতা বাপ,পঙ্গু মা সাংবাদিকদের শুধু বলেছিল-"মেয়ে আই পি এস হতে চেয়েছিল।"

No comments

Powered by Blogger.